গাছের ডালে ফাঁসি দেওয়া হল হনুমানকে, ছটফটানি দেখে প্রত্যক্ষদর্শীরা দিলেন হাততালি


Odd বাংলা ডেস্ক: ভারতে পশু নির্যাতনের ঘটনা থামছেই না। কেরলের গর্ভবতী হাতি হত্যার পর অবস্থার পরিবর্তনের আশা করা হয়েছিল। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে তা ঘটেনি। তারই মধ্যে চরম বর্বরতার ছবি ধরা পড়ল তেলেঙ্গানায়। এবার ফাঁসি দিয়ে হত্যা করা হল এক হনুমানকে। ছটফট করে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ল সে। আর সেই দৃশ্য রীতিমতো উপভোগ করে হাততালি দিল ভিড় জমানো জনতা।

তেলেঙ্গানা বন বিভাগের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, খাম্মাম জেলায় স্রেফ অন্য হনুমানদের ভয় দেখানোর জন্য একটি হনুমানকে তিন ব্যক্তি একটি গাছের ফাঁসি দিয়ে হত্যা করেছে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় হনুমানকে খুনের এই মর্মান্তিক দৃশ্যের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। তারপরই প্রকাশ্যে ঘটনাটি। ভিডিওতে স্পষ্ট দেখা যায়, তেলেঙ্গানার খাম্মান জেলার আম্মাপালেম গ্রামে এক হনুমানকে ধরে বেঁধে গলায় ফাঁস দিয়ে গাছে ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

খাম্মাম জেলার ভেমসুর গ্রামে হনুমানটিকে ফাঁসি দেওয়ার ঘটনা আবার ঘটা করে ভিডিও রেকর্ড করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা হয়েছিল। কিছুক্ষনের মধ‍্যেই প্রাণ হারায় সে। যে দৃশ্য দারুণ উপভোগ করছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। সেই নক্কারজনক পশু নির্যাতনের ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায় এবং বিষয়টি বন দপ্তরের কর্মকর্তাদের নজরে আসে। তাঁরা সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছিলেন। স্থানীয় সংবাদ মাধ‍্যম সূত্রে জানা যায়, গত বেশ কয়েকদিন ধরে সাথুপল্লী এবং আশেপাশের অঞ্চলে বাগানে বাগানে হনুমানদের দাপাদাপিতে রাতের ঘুম উড়ে গিয়েছিল স্থানীয় বাসিন্দাদের। এরপরই ভেমসুর গ্রামের ওই তিন ব্যক্তি ফাঁদ পেতে একটি হনুমানকে বন্দি করে। অভিযুক্তদের দাবি, অন্যান্য হনুমানরা ওই দৃশ্য দেখে ভয় পেয়ে আর উৎপাত করবে না ভেবেই ওই অবলা জীবটিকে তারা একটি গাছের ডালে ফাঁস তৈরি করে তার সঙ্গে ঝুলিয়ে শ্বাসরোধ করে মেরেছে।

আশ্চর্যজনক ভাবে এমন ঘটনার প্রতিবাদও করেনি অন্যরা। বরং এই হনুমান বধের মজার দৃশ্য উপভোগ করতে সেখানে লোক জড়ো হয়ে যায়। ওই ব্যক্তির সাহায্যে পাশেও দাঁড়ায় অনেকে। মানব সমাজের এমন নির্মম রূপ দেখে হতবাক নেটদুনিয়া। ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই নিন্দার ঝড় বইছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।
লোকালয়ে হনুমানদের হানা দেওয়া নিয়েও উদ্বিগ্ন বনকর্তারা। তাদের দাবি মাত্রাতিরিক্ত ভাবে বনাঞ্চল ধ্বংস করে জনবসতি গড়ে উঠছে। এর জন্যই বনাঞ্চলে খাদ্যাভাবে পড়ছে হনুমানরা। তাই লোকালয়ে ঢুকে পড়ছে খাদ্যের সন্ধানে। বনাঞ্চলে পর্যাপ্ত খাবার পেলে তারা আর লোকালয়ে আসবে না।

তবে এই প্রথম নয়, চলতি মাসেই অসমের বরাক উপত্যকার কাছার জেলায় ১৩টি হনুমানের মৃত্যু হয়। জানা যায়, বিষ খাওয়ার ফলেই প্রাণ হারিয়েছিল তারা। বন্যসমাজের উপর মানব সমাজের একাংশের এই হিং’স্র আচরণ মেনে নিতে পারছেন না পশুপ্রেমীরা। ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়তেই খবর পৌঁছায় পুলিশের কানে। ঘটনায় জড়িত তিনজনকে এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপরাধীরা তাদের অপরা’ধ স্বীকার করেছে। বন দপ্তর থেকে তাদের বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সুরক্ষা আইনে মামলা করা হয়েছে। তারা ওই গ্রামে গিয়ে নিহ’ত হনুমানটির পচা-গলা লাশ উদ্ধার করেছেন। সেই দেহের ম’য়নাত’দন্ত করা হচ্ছে।
গাছের ডালে ফাঁসি দেওয়া হল হনুমানকে, ছটফটানি দেখে প্রত্যক্ষদর্শীরা দিলেন হাততালি গাছের ডালে ফাঁসি দেওয়া হল হনুমানকে, ছটফটানি দেখে প্রত্যক্ষদর্শীরা দিলেন হাততালি Reviewed by Odd Bangla Editor on June 30, 2020 Rating: 5
Powered by Blogger.