আত্মহত্যা নয়, খুনই করা হয়েছে সুশান্তকে ,AIIMS-এর ফরেন্সিক রিপোর্টে উঠে আসছে হত্যার তত্ত্ব!


Odd বাংলা ডেস্ক: গত ১৪ জুন অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের অস্বাভাবিক মৃত্যুর পর উত্তাল হয়ে উঠেছিল গোটা দেশ। জাস্টিস ফর সুশান্ত সিং রাজপুত হ্যাশট্যাগে ভরে গিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়া। শুরুর দিন থেকেই সুশান্তের মৃত্যুকে আত্মহত্যা নয়, বরং হত্যার মামলা বলেই দাবি করে এসেছেন তাঁর ফ্যানেরা। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলা মুম্বই পুলিশের হাত থেকে সিবিআই-এর হাতে যাওয়ার পর দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেস তথা এইমস-কে নতুন করে সুশান্তের ভিসেরা পরীক্ষা করে মৃত্যুর কারণ নির্ধারণের দায়িত্ব দেওয়া হয়। 

সিবিআই সূত্রে খবর, সম্প্রতি তাদের হাতে ভিসেরা পরীক্ষার রিপোর্ট তুলে দিয়েছে এইমস। যেখানে সাফ জানানো হয়েছে, অভিনেতার উপর বিষপ্রয়োগ করার কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তবে সুশান্তের গলায় যে গভীর দাগ ছিল তা থেকে কোনও ভাবেই চিকিৎসকেরা মেনে নিতে পারছেন না যে এটি আত্মহত্যার কারণেই ঘটেছে।


ফরেন্সিক রিপোর্টে জানানো হয়েছে, এটি খুনের ঘটনা। সুশান্তের গলার দাগটি কখনওই এটিকে আত্মহত্যার বলে প্রমাণ করে না। যদি তিনি আত্মহত্যাও করেন, তাহলে গলার দাগ আরও উপরের দিকে হতে পরত। কিন্তু যে জায়গায় কালচে গভীর দাগটা ছিল, তা খুনের কারণেই হয়েছে। অর্থাৎ, তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুন করার তত্ত্বই উঠে আসছে। চিকিৎসকরা এটি খুনের ঘটনা বলেই দাবি করছেন, এবং তাঁরা আরও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে, কুপার হাসপাতালের তরফে ময়নাতদন্তের রিপোর্টে যেখানে সুশান্তের আত্মহত্যার তত্ত্ব ব্যাখ্যা করা হয়েছিল, তা আসলে বিকৃত তত্ত্ব! তাই খুনের তত্ত্বও একেবারে উড়িয়ে দিতে পারছেন না এইমসের চিকিৎসকের দল।
আত্মহত্যা নয়, খুনই করা হয়েছে সুশান্তকে ,AIIMS-এর ফরেন্সিক রিপোর্টে উঠে আসছে হত্যার তত্ত্ব! আত্মহত্যা নয়, খুনই করা হয়েছে সুশান্তকে ,AIIMS-এর ফরেন্সিক রিপোর্টে উঠে আসছে হত্যার তত্ত্ব! Reviewed by Odd Creator on অক্টোবর ০১, ২০২০ Rating: 5
Blogger দ্বারা পরিচালিত.