'হাথরাসের তরুণীকে ধর্ষণ করা হয়নি, মৃত্যু হয়েছে হার্ট অ্যাটাকে', এমনই লেখা ময়নাতদন্তের রিপোর্টে!


Odd বাংলা ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের হাথরাসের নির্যাতিতা তরুণীর মৃত্যুর পর এই ঘটনাকে নিয়ে চরম রাজনৈতিক তরজা চরমে।  ময়নাতদন্তের রিপোর্টে ধর্ষণের উল্লেখই নেই! মেরুদণ্ডের হাড় ভেঙে যাওয়ায় তীব্র শ্বাকষ্টের সমস্যা, দুটি পা এবং হাতের প্যারালাইসিস হয়ে যাওয়া, জিভের একাংশে গভীর কামড় ইত্যাদির উল্লেখ থাকলেও ধর্ষণের কোনও উল্লেখ নেই। অথচ এই দলিত তরুণীর ওপর হওয়া নৃশংস অত্যাচার দেশবাসীর মধ্যে দিল্লির বুকে ঘটে যাওয়া নির্ভয়াকাণ্ডের ভয়াবহতার স্মৃতি উস্কে দিয়েছিল। 

ময়নাতদন্তের রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে যে, তরুণীর সারা শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন থাকলেও ধর্ষণের কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি।  মৃত্যুর কারণ হিসাবে লেখা হয়েছিল যে, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তরুণীর। আর এই ময়নাতদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতেই যোগী রাজ্যের পুলিশও এবার দাবি করল যে, মেয়েটির সঙ্গে ধর্ষণের কোনও ঘটনা ঘটেইনি! 


উত্তরপ্রদেশের শীর্ষ পুলিশকর্তা এডিজি (আইশৃঙ্খলা)  প্রশান্ত কুমারের দাবি, নির্যাতিতার শরীরে ধর্ষণের কোনও প্রমাণ পাওয়া  যায়নি। তবে তাঁকে খুব করা হয়েছে বলেই জানান তিনি এবং উত্তরপ্রদেশ পুলিশ এর তদন্তও করছে। কিন্তু এর আগে পুলিশের রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছিল যে ধর্ষেণের পর শ্বাসরোধ করে খুন করার চেষ্টা করা হয়েছে ওই তরুণীকে। শুধু তাই নয়, তাঁকে উদ্ধারের এক সপ্তাহ পর যখন তরুণী কথা বলতে পারছিলেন, তখন তিনি ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দেওয়া বয়ানে ধর্ষকদের নামও বলেছিলেন। অথচ ময়নাতদন্তের রিপোর্টে ধর্ষণের কোনও উল্লেখ নেই কেন, উঠছে প্রশ্ন!
'হাথরাসের তরুণীকে ধর্ষণ করা হয়নি, মৃত্যু হয়েছে হার্ট অ্যাটাকে', এমনই লেখা ময়নাতদন্তের রিপোর্টে! 'হাথরাসের তরুণীকে ধর্ষণ করা হয়নি, মৃত্যু হয়েছে হার্ট অ্যাটাকে', এমনই লেখা ময়নাতদন্তের রিপোর্টে! Reviewed by Odd Creator on অক্টোবর ০১, ২০২০ Rating: 5
Blogger দ্বারা পরিচালিত.